১০ হাজার টাকায় ২৫টি ব্যবসার আইডিয়া-ধনী হবার উপায়

আজকাল সৎ ভাবে উপার্জনক্ষম মানুষের জীবন চালানো কষ্টকর হয়ে দাঁড়িয়েছে।দুর্নীতির সয়লাবের কারনে নিত্য ব্যবহার্য জিনিসপত্রসহ সকল কিছুর দাম আকাশছোঁয়া। তাই গতানুগতিক চাকরির পাশাপাশি ছোটখাটো হালাল ব্যবসার চেষ্টা করা সময়োপযোগী ও দূরদর্শী সিদ্ধান্ত। কিছু ব্যবসা অল্প পুঁজিতেই শুরু করা সম্ভব।এই আর্টিকেলে মাত্র ১০ হাজার টাকায় ২৫টি ব্যবসার আইডিয়া  সম্পর্কে জানতে পারবেন।

আমাদের নবী করীম সঃ তাঁর একটি হাদিসে সর্বোত্তম উপার্জন সম্পর্কে বলেছেন, ‘নিজ হাতে কাজ করা এবং হালাল পথে ব্যবসা করে যে উপার্জন করা হয় তা-ই সর্বোত্তম।’ অনেকেই ভাবেন ব্যবসা করতে তো অনেক  টাকা প্রয়োজন। বিষয়টা সবসময় এমন না। আপনি আপনার সামর্থ্যের মধ্যেই ছোটখাট ব্যবসা শুরু করতে পারেন। বিশেষ করে কিছু অনলাইন ব্যবসার জন্য টাকা পয়সা খুব একটা লাগেনা বললেই চলে।

চাকরিজীবী পুরুষ বাড়তি আয়ের লক্ষ্যে কিংবা সংসারি মেয়েরাও ঘরের কাজের পাশাপাশি ছোটখাটো এসব বিজনেস আইডিয়াগুলো কাজে লাগাতে পারেন নিজেদের সামর্থ্য ও সময় অনুযায়ী। আর কে বলতে পারে আমাদের এই ১০ হাজার টাকায় ২৫টি ব্যবসার আইডিয়া আর্টিকেলটি পড়ার পর আপনি নিজেই হয়ে যেতে পারেন ধনীদের একজন। তাহলে আর দেরী না করে দেখে আসি কি সেই ব্যবসার আইডিয়া গুলো সম্পর্কে। 

১০ হাজার টাকায় ২৫ টি ব্যবসার আইডিয়া

১. হোমমেড খাবারের ব্যবসা

যারা রান্নায় দক্ষ, হরেক রেসিপির রান্নায় পারদর্শী তারা তাদের প্যাশনকে আয়ের মাধ্যমে পরিণত করতে পারেন খুব সহজেই।বর্তমানে হোমমেড খাবারের চাহিদার শেষ নেই। মেহমান এলে কিংবা চাকরিজীবী মহিলারা নিজেদের জন্যেও হোমমেড খাবার খুঁজে থাকেন। অল্প পুঁজি দিয়েই এই বিজনেস শুরু করা যায়। এর জন্য প্রয়োজন হবে ডেলিভারি সার্ভিসগুলোর সহায়তা।

কোচিং/ টিউটোরিং

২. কোচিং/ টিউটোরিং (স্বল্প পরিসরে)

নিজের বাসাতেই একটি বা দুটি রুম ফ্রি থাকলে পড়াশোনার জন্য কোচিং সার্ভিস শুরু করা যাবে। কোন একটি/দুটি সাবজেক্ট যেটিতে আপনি দক্ষ, সেই সাবজেক্ট পড়ানোর জন্য আপনার সুবিধামত শ্রেণির ছাত্র ছাত্রী খুঁজুন। এক্ষেত্রে টিউশন বিজ্ঞাপন, টেবিল-চেয়ার, হোয়াইট বোর্ড, কিছু বই পত্র কিনতে নূন্যতম খরচেই শুরু করা সম্ভব। যেমন, ম্যাথ কোচিং, এসএসসি/ এইচএসসি ইংলিশ ব্যাচ, শুধু সায়েন্সের বিষয়ভিত্তিক কোচিং ইত্যাদি।

বাচ্চাদের জামা-কাপড় সেলাই

৩. বাচ্চাদের জামা-কাপড় সেলাই

মহিলাদের জন্য একটি উপযুক্ত ও লাভজনক ব্যবসা হল সেলাই করা যদি এটিতে আগ্রহ ও দক্ষ হয়ে থাকেন। সেলাইয়ে পারদর্শী না হলে শুধু যদি আগ্রহ থাকে তাহলে কোর্স করে বা ইউটিউব দেখেও শিখে নেয়া যায়। সেলাই মেশিন ও অন্যান্য সেলাইয়ের সামগ্রী ১০ হাজার টাকার মধ্যে কিনে ফেলা সম্ভব। বর্তমানে অনেক মহিলারাই সংসারের পাশাপাশি সেলাইয়ের কাজ করে আয় করে থাকেন।

অনলাইনে/অফলাইনে মেয়েদের থ্রি-পিস/ বোরখা বিক্রয়

৪. অনলাইনে/অফলাইনে মেয়েদের থ্রি-পিস/ বোরখা বিক্রয়

বর্তমানে অনলাইনে মেয়েরাই খুব সহজে এই জামাকাপড় ও বোরখার ব্যবসা করছেন। ইসলামপুরসহ বেশ কিছু পাইকারি মার্কেট থেকে ভাল মানের কাপড় সংগ্রহ করে অনলাইনে ছবি ও ভিডিওর মাধ্যমে দেখিয়ে সেই প্রোডাক্ট কেনাবেচা করছেন।অল্প পুঁজি দিয়ে শুরু করে আস্তে আস্তে এই ব্যবসাগুলো লাভ করে বড় পরিসরে এগিয়ে যায়।

অনলাইনে নিজ হস্তশিল্পের বিভিন্ন জিনিস বিক্রয়

৫. অনলাইনে নিজ হস্তশিল্পের বিভিন্ন জিনিস বিক্রয়

আপনি যদি ক্রাফট এ দক্ষ হয়ে থাকেন তাহলে খুব অল্প খরচেই কাঁচামাল ক্রয় করে বিভিন্ন হস্তশিল্পের জিনিস তৈরি করে অনলাইনে বা অফ্লাইনে সেল করতে পারেন। আপনার মার্কেটিং সম্পর্কে বেসিক ধারণা থাকতে হবে। ব্রান্ডিং কিছুটা জানা প্রয়োজন। এমনকি আপনি হস্তশিল্পের কাজ না জানলেও যিনি জানেন তার সাথে যৌথভাবে ব্যবসা শুরু করতে পারেন।

১০ হাজার টাকায় ২৫ টি ব্যবসার আইডিয়া

৬. ফাস্টফুড স্টল

আমাদের পাশের বাসার এক আন্টি তার শাশুড়ির সাথে বাসায় বসেই হালিম আর স্যুপ বানিয়ে বিক্রি করতেন, তাদের বাসার নিচেই তারা ফুড স্টল দিয়েছিলেন। তাদের ফুড স্টল এর প্রচারের জন্য তারা বেশ কিছুদিন এলাকার মধ্যে মাইকিং করেন। তাদের এই ব্যবসাটি বেশ লাভজনক হয়েছিল, রাত ৯/১০টা বাজতেই তাদের বানানো সকল হালিম আর স্যুপ শেষ হয়ে যেত, বাড়ির আশেপাশে থেকেই প্রচুর অর্ডার আসতো। এভাবে খুব অল্প খরচের মধ্যে এবং সামর্থ্যমত ফাস্ট ফুড আইটেম নিয়ে এই লাভজনক ব্যবসা শুরু করতে পারেন।

ছাদবাগান তৈরি/ আঙিনায় শাক-সব্জি উৎপাদন

৭. ছাদবাগান তৈরি/ আঙিনায় শাক-সব্জি উৎপাদন

ঢাকা শহরে বিল্ডিংয়ের ছাদে বিভিন্ন ফল ও সবজির বাগান করা এখন আর শখের পর্যায়ে নেই। কারো সময় থাকলেই করছেন, প্রায় সবগুলো ছাদেই গাছপালা দেখা যায়। তবে অনেকেরই শখ থাকলেও বিভিন্ন ব্যস্ততায় করা হয়ে ওঠে না। আপনার যদি গাছের যত্ন ও কৃষি বিষয়ে ভাল জ্ঞান থাকে তবে ক্লায়েন্টের পছন্দ অনুযায়ী গাছ কিনে তাদের ছাদে বাগান করে দেয়ার দ্বায়িত্ব নিতে পারেন। এটি একটি ভাল ব্যবসা এবং অনলাইনে এই ব্যবসাটির প্রসার হচ্ছে।

এছাড়া গ্রামের মহিলারা নিজ আঙিনায় বা এক টুকরো জমি থাকলে তাতে শাক-সবজি উৎপাদন করেও জীবিকা নির্বাহ করছেন, বাড়তি আয় করছেন।

১০ হাজার টাকায় ২৫ টি ব্যবসার আইডিয়া

৮. হাঁস-মুরগি পালন

গ্রামে হাঁস মুরগি পালন সামর্থ্য অনুযায়ী প্রায় সকল বাড়িতেই দেখা যায়। এটি শহরে সম্ভব নয়। মিনিমাম ৫০০০ টাকায় ৬-৭ টি দেশি মুরগী কিনা যাবে এবং এই ৭টি মুরগির ঘর তৈরি করতে যাবে আরো ৫০০০ টাকা। অন্যদিকে হাঁস পালনের ক্ষেত্রেও কাছাকাছি খরচ হবে। এভাবে যে যতটুকু পারে ব্যবসা শুরু করতে পারে।

১০ হাজার টাকায় ২৫ টি ব্যবসার আইডিয়া

৯. ছাদে মাছ, পাখি প্রতিলালন

ছাদে চৌবাচ্চা তৈরি করে বা কর্কশীটের বাক্সের মধ্যেও রঙিন মাছ চাষ করে স্বাবলম্বী হচ্ছে অনেকেই। যে ধরণের মাছ একুয়ারিয়ামে শোভা পায়, সেইসব মাছ চাষের কথা বলা হচ্ছে, এই ব্যবসাটি খুব অল্প সময়ের মধ্যেই দাঁড়িয়ে যায়। এছাড়া খাঁচার মধ্যে কবুতরসহ বিভিন্ন শৌখিন পাখি বাজেটের মধ্যে প্রতিপালন করে বিক্রি করা যায়। ১২ জোড়া কবুতরের দাম ৬০০০ টাকা এবং এদের ঘর বানাতে লাগে ৫০০০ টাকা। অনেক ক্ষেত্রে আপনি নিজেই এই ঘর বানিয়ে টাকা বাঁচাতে পারেন।

পেইন্টিং

১০. পেইন্টিং

আজকাল যারা পেইন্টিং জানেন, ক্যানভাস পেইন্টিং ছাড়াও তারা যেকোন কিছু যেমন কাপ,পিরিচ, মাটির পট, সুপারি পাতার খোল, আয়না, কাঠের জিনিস মনের মত রঙ করে শোপিস তৈরি করেন এবং অনলাইনে বিক্রি করে লাভজনক ব্যবসা করছেন। সোশ্যাল মিডিয়ায় পেজ তৈরি করে খুব সহজেই অল্প খরচে এই বিজনেসটা করা যায়।

ওয়েবসাইট এর জন্য কনটেন্ট লিখা

১১. ওয়েবসাইট এর জন্য কনটেন্ট লিখা

দেশে বিদেশে কনটেন্ট রাইটারদের প্রচুর চাহিদা। বিভিন্ন বিষয়ে ব্লগ ও ওয়েবসাইট এর জন্য বাংলা ও ইংরেজি কন্টেন্ট লিখে ফুল টাইম প্রফেশন হিসেবে এটিতে প্রচুর ফ্রিল্যান্সাররা কাজ করছেন। যেকোনো লিখিত ভাষায় দক্ষ হয়ে থাকলে কন্টেন্ট রাইটিং জবে পার্ট টাইম হিসেবে অনেক আয় করা সম্ভব।

১০ হাজার টাকায় ২৫ টি ব্যবসার আইডিয়া

১২. ডিজিটাল মার্কেটিং

ডিজিটাল মার্কেটিং বাংলাদেশে কয়েক বছর ধরেই প্রচুর জনপ্রিয় একটি ফ্রিল্যান্সিং প্রফেশনে পরিণত হয়েছে এবং এর পরিধিও বাড়ছে। অনলাইনে ডিজিটাল মার্কেটিং শেখার কোর্স মাত্র ২ থেকে ৫ হাজারের মধ্যেই করা যায়। এটি সহজ এবং যে কেউ এই কাজ শিখে ভাল আয় করতে পারে। অনলাইন ও অফলাইন দুই দিক থেকেই একজন ডিজিটাল মার্কেটিয়ার এর ব্যপক চাহিদা এখন রয়েছে। তবে অনলাইনে করতে হলে আপনার একটি পিসি বা ল্যাপটপ থাকা অবশ্যই জরুরি।আপনি যদি ব্লগ তৈরির নিয়ম এবং ব্লগ থেকে কিভাবে আয় করা যায়  জানতে চান তবে এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।

মোবাইল ফোন সংক্রান্ত জিনিসপত্র পত্র বিক্রি

১৩. মোবাইল ফোন সংক্রান্ত জিনিসপত্র পত্র বিক্রি

১০ হাজার টাকায় এই ব্যবসাটি শুরু করতে পারেন। আজকাল সবাই ফোন ব্যবহার করেন। ফোন মেরামতের জন্য নিত্য প্রয়োজনের জন্য এটি হতে পারে অল্প সময়ের মধ্যে একটি লাভজনক ব্যবসা।

অনলাইন ট্রাভেল এজেন্সি

১৪.অনলাইন ট্রাভেল এজেন্সি

অল্প পুঁজিতে ব্যবসার আরেকটি ভাল আইডিয়া হচ্ছে ট্রাভেল এজেন্সি ব্যবসা। অবশ্যই তা অনলাইনে। আজকাল মানুষের সময় কম এবং ব্যস্ত মানুষ যত টুকু সম্ভব সময় বাঁচানোর চেষ্টা করে। তাই কোথাও ঘুরতে যাওয়ার প্লান করলে পরিবহনের টিকেট থেকে শুরু করে হোটেল বুকিং, ট্যুর প্লান, উল্লেখযোগ্য জায়গা ঘুরার প্যাকেজ ইত্যাদি কাজের জন্য ট্রাভেল এজেন্সির কাছে ধরণা দিয়ে থাকে। এটি খুব সহজ এবং সাইড ব্যবসা হিসেবে আপনার জন্য দারুন ইনকাম সোর্স হতে পারে।

ফুড ভ্যান

১৫. ফুড ভ্যান

ছূটির দিনগুলোতে বা বিকেলের পর থেকেই রাস্তায় স্ট্রিট ফুড ভ্যানগুলোয় দেখা যায় উপচে পড়া ভীড়। ফুচকা,চটপটি, স্যুপ,নুডলস, কাবাব, ঝালমুড়ি, মোমো, বার্গার কি নাই সেখানে! অল্প দামে ভাল মান ও উপাদেয় খাবারের ব্যবসা খুব দ্রুত উঠে যায় এবং এটি অনেক লাভজনক। মাত্র ১০ হাজার টাকার মধ্যেই এই ব্যবসাটি করা যাবে।

ড্রপশিপিং(dropshipping)বিজনেস

১৬. ড্রপশিপিং(dropshipping)বিজনেস

ড্রপশিপিং একটি বিজনেস পদ্ধতি যাতে কোন মুলধন লাগে না বা খুব সামান্য কিছু খরচ হয়, এমনকি আপনার কোন দোকান ভাড়া বা স্টোরেজ ও লাগবেনা। আপনার নিজস্ব কোন পণ্য না থাকলেও হবে। অন্যের পণ্য তাদের ওয়েবসাইট থেকে বা যেকোন ই-কমার্স সাইট থেকে যেমন(আলিবাবা,এমাজন ইত্যাদি) কাস্টমারদের অর্ডার অনুযায়ী বিক্রি করবেন। যেকোন অনলাইন ডেলিভারি সার্ভিসের মাধ্যমে। তবে অনলাইনে যেকোনো কাজের জন্য আপনার ল্যাপটপ ও ইন্টারনেট সংযোগ লাগবে।আপনি যদি ড্রপশিপিং বিজনেস সম্পর্কে জানতে চান তবে লিঙ্কে ক্লিক করুন।

বিভিন্ন অনলাইন প্লাটফর্মে দেশিয় জিনিস বিক্রয়

১৭. বিভিন্ন অনলাইন প্লাটফর্মে দেশিয় জিনিস বিক্রয়

দেশিয় জিনিসের কদর বেশি।বিভিন্ন দেশিয় জিনিস যেমন, নকশীকাঁথা, তাঁতের শাড়ি, বাঁশের বা পাতার তৈরি ঝুড়ি, পাটি, পাপোশ ইত্যাদি কেউ বানায় বা উৎপাদনকারী কারখানার সাথে লিঁয়াযো করে অনলাইনে সেগুলো সেল করতে পারেন।

অনলাইনে বই বিক্রি

১৮. অনলাইনে বই বিক্রি

বর্তমানে বাংলাদেশে রকমারি ডট কম সবচেয়ে বড় অনলাইন বই বিক্রির প্লাটফর্ম। এখান থেকে আইডিয়া নিয়ে অনেকরকম ব্যবসা পরিকল্পনা করা যায়। যেমন, অনলাইনে বিশেষ করে ফেসবুকের মাধ্যমে পুরাতন বা সেকেন্ড হ্যান্ড বই বিক্রি হয়ে থাকে। গল্পের বই থেকে শুরু করে পড়াশোনা ও চাকরি বিষয়ক বই। নতুন বই যাদের না হলেও হয় তারা অল্প দামেই এভাবে বই পেয়ে উপকৃত হচ্ছেন। এভাবে অল্প টাকায় কিছু বিষয়ভিত্তিক বই কিনে ফেসবুকের মাধ্যমে বা যেকোন ই-কমার্স সাইট দিয়ে বই বিক্রি করার ব্যবসা করা যেতে পারে।

আঁচার তৈরি

১৯. আঁচার তৈরি

ঘরোয়া মহিলাদের জন্য স্মার্ট বিজনেস হল আঁচারের ব্যবসা। এমনিতেই অনেকে আঁচার তৈরি করতে পারেন বা না পারলেও শিখে নেওয়া কোন ব্যাপার না যদি পর্যাপ্ত সময় ম্যানেজ করতে পারেন। ১০ হাজার টাকায় এই ব্যবসা খুব ভালভাবেই গুছিয়ে শুরু করা যায়।

ছাগল প্রতিপালন

২০. ছাগল প্রতিপালন

১০ হাজার টাকার মধ্যে একটি ছাগল কিনা যাবে শুরু করার জন্য। ৬-৮ হাজারের মধ্যে ভাল মানের ছাগল পালন করে এর দুধ বিক্রি করা যেতে পারে। বাকি টাকায় ছাগলের জন্য প্রয়োজনীয় খাদ্য সরবরাহ করতে পারবেন।

মাটির তৈরি শোপিস ও গয়না

২১.মাটির তৈরি শোপিস ও গয়না

মাটির তৈরি শোপিস, গয়না যারা তৈরি করতে পারদর্শী। তাদের জন্য শৌখিনমনা কাস্টমার এর অভাব নেই। এটি অনলাইন বা অফলাইন হোক খুব কম খরচেই ব্যবসা চালানো যাবে।

সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং

২২. সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং

স্টুডেন্ট থেকে শুরু করে যারা ফ্রিল্যান্সিং এ আগ্রহী, সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং করে লক্ষ টাকাও আয় করে আসছে। এটির কোর্স করতে ৩-৫ হাজারের মত লাগে। ল্যাপটপ বা স্মার্টফোন দিয়েও করা যায়।

মাটির টবসহ ইনডোর প্ল্যান্ট বিক্রি

২৩. মাটির টবসহ ইনডোর প্ল্যান্ট বিক্রি

ঘর সাজানোর জন্য ও ঘরের পরিবেশ দূষণমুক্ত রাখতে এখন অনেকেই ইন্ডোর প্ল্যান্ট এর দিকে ঝুঁকছেন। গাছপালার প্রতি এমনিতেও অনেকেরই আকর্ষণ রয়েছে। এর সাথে যদি রঙিন টবসহ দেয়া যায় তাহলে তো কথাই নেই। অনেক কম খরচে স্মার্ট ব্যবসা।

সিজনাল ফলের ব্যবসা

২৪. সিজনাল ফলের ব্যবসা

সিজনাল ফল বিশেষ করে আমের সিজনে এই ফলের ব্যবসা এখন প্রচুর লাভজনক ও জনপ্রিয়। অল্প সময়েই স্বল্প পুঁজিতে সিজনাল ফলের ব্যবসার জুড়ি নেই। এছাড়া শহরের মানুষ দেশি ফলগুলো সময়ের অভাবে খুজতে পারেন না। তাই দেশি সিজনাল ফল যেগুলো সহজলভ্য নয় এমন ফল সরবরাহ করতে পারলে ভাল লাভের সম্ভাবনা রয়েছে।

ভিডিও কনটেন্ট তৈরি

২৫. ভিডিও কনটেন্ট তৈরি

ইউটিউবের জন্য ভিডিও কনটেন্ট তৈরি করেও প্রচুর ইনকাম করা যায়। এটি খুবই জনপ্রিয় একটি আয়ের মাধ্যম। প্রশ্ন হল, ভিডিওর বিষয় কি হবে। অবশ্যই তা শিক্ষামূলক ও ইন্টারেস্টিং হতে হবে।হতে পারে কোন রান্নার রেসিপি, ড্রয়িং, সুন্দর হাতের লিখা বা ক্যালিগ্রাফি, পেইন্টিং, শিশুদের জন্য শিক্ষামূলক কোন গল্প বা এনিমেশন ইত্যাদি যা-ই আপনি পারেন। অনেকে আবার ভ্লগ করেও ইউটিউবে দিয়ে থাকেন।

আরও পড়ুনঃভিডিও এডিটিং কিভাবে শিখব?

এতকিছুর পরেও অনেকের মনে প্রশ্ন জাগতে পারে, ব্যবসা শুরু করতে পারলেও সেটি টিকবে কিনা। উপরে ১০ হাজার টাকায় ২৫টি ব্যবসার আইডিয়া গুলো দেয়া হয়েছে এর বাইরেও ব্যবসার খুঁটিনাটি  সম্পর্কে অনেক কিছু জেনে নেয়া প্রয়োজন। মানুষের জ্ঞানের পরিধি, মেধা, আগ্রহ ও পরিশ্রমের উপর তার সফলতা নির্ভর করে। উপোরোক্ত বেশিরভাগ আইডিয়া সাইড বিজনেস বা পার্ট টাইম কাজের জন্য উপযুক্ত কেননা এগুলোর পুঁজি অল্প।তবে উন্নত মানের পণ্য ও ব্যবসায়ে সৎ ও আন্তরিক থাকলে ব্যবসার পরিধি যেমন বাড়ে ও বরকতও অনেক পাওয়া যায়।আমাদের মাত্র ১০ হাজার টাকায় ২৫টি ব্যবসার আইডিয়া গুলো কেমন লাগল জানাবেন কমেন্টে।

 

তামামা মুহসিনা

তামামা মুহসিনা

ছোটবেলা থেকেই বই পড়ার নেশা আমাকে লিখালিখির অনুপ্রেরণা যুগিয়েছে। পড়াশোনার বাইরেও প্রচুর বই পড়ার অভ্যাস ছিল, এখনো আছে। আমি অনার্স ও মাস্টার্স করেছি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা ও গবেষণা ইন্সটিটিউট থেকে। কিছুদিন শিক্ষকতা করলেও এবার লিখালিখিতে মনোনিবেশ করেছি। শিক্ষাবিষয়ক ও তথ্যসমৃদ্ধ লিখা লিখতে ভাল লাগে। পছন্দের বিষয়ঃশিক্ষাব্যবস্থা, শিক্ষা কালচার, স্বাস্থ্য সচেতনতা, মা ও শিশুর যত্ন, ইসলামের সৌন্দর্য ইত্যাদি।

Leave a Comment